স্বদেশ চেতনা ও জাতীয়তাবোধের ধারক ও বাহক ছিলেন মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্ত।

16

উৎপল দে, কেশবপুর(যশোর):
অমিত্রাক্ষর ছন্দ্রের প্রর্বতক মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৬ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সপ্তাহব্যাপী মধুমেলার ২য় দিন বৃহস্পতিবার। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মধুসূদনের স্বদেশ চেতনা ও বাঙালি জাতীয়তাবোধ শীর্ষক বিষয় ভিক্তিক আলোচনা সভা মধুমন্ঞে অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোচনা সভা যশোর জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এস এ এম রফিকুন্নবী এর সভাপতিত্ব প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন খুলনা বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার সুভাষ চন্দ্র সাহা। স্বাগত বক্তব্য দেন কেশবপুরে উপজেলা নিবার্হী অফিসার নুসরাত জাহান।
বক্তারা বলেন স্বদেশ চেতনা ও জাতীয়তাবোধের ধারক ও বাহক ছিলেন মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্ত। তিনি ছিলেন একজন খাঁটি বাঙালি মানুষ। বাংলা তার মাতৃভাষা, বাঙালি জাতীয়তাবোধ তার বিশ্বাসের জায়গা। মধুসূদনও দক্ষতার সহিত এটাকে ধারণ করেই নিপুণ হাতে অনবদ্য সাহিত্য সম্ভার সৃষ্টি করেছেন। আর তাই সুদূর ভার্সাই নগরে থেকেও কবি তার স্বদেশের প্রতি ভালোবাসা দেশের কথা শৈশব জীবনের হাজারো মধুময় স্মৃতি এতটুকু ভুলে যাননি ।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন ঢাকার কবি নজরুল ইন্সটিটিউট এর উপ পরিচালক কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন, সরকারি আজম খান কমার্স কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক অসিত বরণ ঘোষ। আলোচক হিসাবে বক্তব্য দেন খুলনা বিশ্ব বিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. তানভীর দুলাল, উপশহর মহিলা কলেজের উপধ্যক্ষ ড. শাহনাজ পারভীন, সহকারি অধ্যাপক মোঃ সফিয়ার রহমান, যশোর সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার আলম খান দুলু, কবি হুসাইন নজরুল, কবি সাইফুদ্দিন সাইফুল, সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান নান্নু, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও ছড়াকার সাজ্জাদ গণি খান রিমন।

আলোচনা অনুষ্ঠানের পূর্বে দুপুর ২টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবেন কেশবপুরের স্থানীয় সংগঠন নব দিগন্ত একাডেমী, নৃত্যকেন্দ্র, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক পরিষদ, মধু সংগীত একাডেমী, দক্ষিণ বাংলা বাউল পরিষদ এবং লোকজ একাডেমী। দুপুর ৩.১৫ মি. হতে যশোরের সাংস্কৃতিক সংগঠন সাহিত্য পরিষদ, আশাবরী, সুরধুনী, চাঁদেরহাট, বিশ্বভরা প্রাণ ও বিবর্তন। রাতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে অংশ নেয় রাজবাড়ি জেলা শিল্পকলা একাডেমী, নাটক- উদীচী ও শিখরী নোটন সম্প্রদায় কেশবপুর, যাত্রাপালা- ‘চরিত্রহীন’ পরিবেশনায় বাংলাদেশ যাত্রাশিল্প উন্নয়ন পরিষদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কেশবপুর উপজেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা বিমল কুন্ডু ও শিক্ষক উজ্জ্বল ব্যানার্জী ।

SHARE

LEAVE A REPLY